1. chitrabani24@gmail.com : admin :
  2. qwsd@postcards-hawaii.com : leannetolmer375 :
  3. herokkazi6@gmail.com : mohidul :
  4. saddamuddinraj@gmail.com : Saddam Uddin Raj : Saddam Uddin Raj
  5. yusuf@ataberkestate.com : TimothyGuete :
নড়াইলের লোহাগড়ায় আল-ইসলামিয়া ক্লিনিকে ডাক্তারের অদক্ষতায় সিজারিয়ান রোগীর মৃত্যু। » Chitrabani 24 | online news paper
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৮:৩১ পূর্বাহ্ন

নড়াইলের লোহাগড়ায় আল-ইসলামিয়া ক্লিনিকে ডাক্তারের অদক্ষতায় সিজারিয়ান রোগীর মৃত্যু।

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩০ জুলাই, ২০২২
  • ৪৬৫ জন পাঠক দেখেছে

বিশেষ প্রতিনিধিঃ খন্দকার ছদরুজ্জামান

গত ১৫ জুলাই ২০২১তারিখ আল- ইসলামিয়া ক্লিনিকে ডাক্তারের অদক্ষতার কারণে ঝরে গেল একটি প্রাণ, নবজাতক শিশুটি হারালো তার মা,স্বামী হারালো তার স্ত্রী, মা বাবা হারালো তাদের মেয়েকে।

আল-ইসলামিয়া সার্জিকাল ক্লিনিকের মালিক মুরাদ কাজীর সাথে মজিদ নামের একজনের সাথে সিজারিয়ান বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় এক পর্যায়ে ওই ক্লিনিকে মজিদের ভাগ্নি কেয়া বেগম কে ভর্তি করেন এবং সিজারিয়ান করার পূর্বে টোডোফাস্ট আনতে বলে এবং নিয়ে আসে সিজারিয়ান হয়।
পরবর্তীতে ক্লিনিকের মালিক মুরাদ কাজী
রক্ত টানার জন্য একটি ছেলেকে মজিদের সাথে দিয়ে বলেন এই ছেলে থেকে রক্ত টেনে নিয়ে আসো। রক্ত নিয়ে ক্লিনিকে পৌঁছানোর পর ক্লিনিক মালিক মুরাদ কাজী মজিদকে বলেন রক্ত দেওয়া লাগবেনা রোগীকে দ্রুত নড়াইল সদর হাসপাতালে নিয়ে যাও।
রোগীকে নড়াইল সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার বলেন এ রোগী এক দেড় ঘন্টা পূর্বে মারা গেছে। মজিদ বলেন ক্লিনিক থেকেই রোগী মারা গেছে অথচ আমাদের সাথে ক্লিনিক মালিক মুরাদ কাজী একটা চিটিংবাজী করেছে।

এটা নতুন কোনো ঘটনা নয়, একের পর এক অপারেশন রোগীর মৃত্যু ঘটছে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও)ডাঃআব্দুল্লাহ আল মামুনের হাতে।
গতকাল ১৫/০৭/২১ ইং আনুমানিক দুপুর ২ টার সময় সিজারিয়ান অপারেশন করেন ডাঃমামুন।অদক্ষ এই ডাক্তারের ভুল অপারেশনে আনুমানিক রাত ১১.৩০ টার সময় রোগীর মৃত্যু হয়। রোগী কেয়া বেগম নড়াইল সদরের শুম্ভু ডাঙ্গা গ্রামের আরিফুল ইসলাম এর স্ত্রী। বাবার বাড়ি লোহাগড়ার দিঘলিয়া ইউনিয়নের বাটিকাবাড়ি গ্রামের মিরাজ শেখ এর মেয়ে কেয়া বেগম।
প্রশাসন এবং সাংবাদিকদের এই হত্যার বিচার পাওয়ার আকুতি জানান নিহতের স্বজনরা ।পরে উক্ত ঠিকানায় তার স্বজনরা লাশ নিয়ে যায়। খোঁজ নিয়ে জানা যায় ডাঃমামুন অপারেশনের কোনো অভিজ্ঞতা নেই,তিনি এ্যানেস্থেসিয়ার ডাক্তার।রোগীর স্বজনদের অভিযোগ ডাঃমামুন অনভিজ্ঞ ডাক্তার এবং তিনি খাম-খেয়ালিপনা করে আমাদের রোগীকে মেরে ফেলেছেন।প্রশাসনের কাছে আমাদের অনুরোধ এই ডাক্তার নামক কসাইকে শাস্তির আওতায় আনা হোক।
খোঁজ খবর নিয়ে আরো জানা যায় লোহাগড়ায় কয়েকটি ক্লিনিকে ডাঃমামুনের হাতে কয়েকমাসের ব্যবধানে ৫-৬ জন সিজারিয়ান রোগীর মৃত্যু ঘটেছে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ক্লিনিকের মালিক বলেন, কিছুদিন আগে আমার ক্লিনিকে ডাঃমামুন সাহেব সিজারিয়ান অপারেশন করেন। কিন্তু অনভিজ্ঞ ডাক্তার হলে যা হয়,অসাবধানতা বসোতো রোগীর জরায়ু কেটে যায় এবং অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে রোগী মারা যায়।তার ভুলের কারনে রোগীর স্বজনদের জরিমান বাবদ অনেক অর্থ আমাকে বহন করতে হয়েছে।
এটা হত্যা বলে আমি মনে করি,এর দায় আমি ক্লিনিক মালিক একা নেবো কেনো? সম্পুর্ন দায়ভার ডাক্তারের। ঐ ক্লিনিক মালিক আরো বলেন, উনিতো ডাক্তার না খুনি।এরকম বিপদে ফেলানোর বিচার আল্লাহর কাছে দিলাম।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

© All rights reserved © 2022 | Chitrabani 24
Theme Customized By BreakingNews